কেন এশিয়া কাপ ক্রিকেট আয়োজন করতে পারল না শ্রীলঙ্কা Asia Cup 2022

রাজনৈতিক এবং অর্থনৈতিক সঙ্কটের মধ্যেও অস্ট্রেলিয়া, পাকিস্তান সে দেশে খেলেছে। এশিয়া কাপ করতে সমস্যা কোথায় হল?

Asia Cup 2022

দেশজুড়ে চলতে থাকা চরম আর্থিক এবং রাজনৈতিক সঙ্কটের মধ্যেও অস্ট্রেলিয়া এবং পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সিরিজ খেলেছে শ্রীলঙ্কা। তবে এশিয়া কাপের মতো প্রতিযোগিতা নিজেদের দেশে আয়োজন করতে অপারগ তারা। বিস্তর টালবাহানার পর সম্প্রতি জানানো হয়েছে, এ বারের এশিয়া কাপ হবে সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে।

কেন এশিয়া কাপ আয়োজন করতে পারল না শ্রীলঙ্কা? নেপথ্যে উঠে এসেছে চারটি কারণ— যাতায়াতের সমস্যা, নিরাপত্তা, স্পনসর এবং সম্প্রচারের অভাব। শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট সংস্থার সচিব মোহন ডি সিলভা সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, “এই প্রতিযোগিতার সঙ্গে অনেকে যুক্ত। এই পরিস্থিতিতে তাদের আস্থা অর্জন করা সম্ভব নয়। শুধু সদস্য দেশগুলির সমস্যা হবে তা-ই নয়। এই মাপের প্রতিযোগিতা আয়োজন করার জন্য যাদের দরকার, সেই সম্প্রচারকারী, স্পনসর জোগাড় করা অসম্ভব। গোটা বিশ্বে আমাদের সম্পর্কে নেতিবাচক প্রচার করা হয়েছে। পেট্রল পাম্পে লাইন, ফাঁকা গ্যাসের সিলিন্ডার দেখানো হয়েছে। এতে আরও অসুবিধা হয়েছে আমাদের।”

মোহন আরও বলেছেন, “স্পনসরদের পক্ষে এই পরিস্থিতি ব্যবসা করা সম্ভব। নিরাপত্তাজনিত কারণে সম্প্রচারকারী চ্যানেলের কর্মীরাও শ্রীলঙ্কায় আসার অনুমতি পাচ্ছেন না। অন্যান্য দেশের যে অতিথিদের আসার কথা ছিল, তাঁরাও এ দেশে আসার সাহস পাচ্ছেন না। তাই প্রতিযোগিতা অন্য দেশে সরানো ছাড়া উপায় ছিল না।”

প্রসঙ্গত, কিছু দিন আগেই শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্টের প্রাসাদ দখল নিয়েছিল সাধারণ মানুষ। বিপদে পড়ে গোতাবায়া রাজাপক্ষে পালিয়ে যান অন্য দেশে। তার পরে রনিল বিক্রমসিঙ্ঘেকে প্রেসিডেন্ট হিসাবে ঘোষণা করা হয়েছে। তবে দেশের পরিস্থিতি এখনও পুরোপুরি আয়ত্তে আসেনি।


এশিয়া কাপের জন্য দল ঘোষণা পাকিস্তানের

নেদারল্যান্ডের বিপক্ষে আসন্ন ওয়ানডে সিরিজ এবং চলতি মাসের শেষদিকে শুরু টি-টোয়েন্টি এশিয়া কাপের জন্য আলাদা দুটি দল ঘোষণা করেছে পাকিস্তান।

Asia Cup 2022
Asia Cup 2022

দুই দলেই আছেন পাকিস্তানের তারকা পেসার শাহিন শাহ আফ্রিদি। চোটের কারণে গত মাসে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্ট মিস করেন বাঁহাতি এই পেসার।

পাকিস্তানের দুটি দলকেই নেতৃত্বে দেবেন বাবর আজম। দল থেকে বাদ পড়েছেন হাসান আলি। তার বদলে পাকিস্তান স্কোয়াডে এসেছেন পেসার নাসিম শাহ।

নেদারল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের দল থেকে পাঁচটি পরিবর্তন এনে এশিয়া কাপে নামবে পাকিস্তান। আবদুল্লাহ শফিক, ইমাম-উল-হক, মোহাম্মদ হারিস, সালমান আলি আঘা এবং জাহিদ মেহমুদের বদলে আসবেন আসিফ আলি, হায়দার আলি, ইফতিখার আহমেদ এবং উসমান কাদির।


আগামী ৪ মাসে পাঁচবার একে অপরের মুখোমুখি হবে ভারত ও পাকিস্তান

গোটা বিশ্বের ক্রীড়াজগতে ভারত-পাকিস্তান ক্রিকেট ম্যাচ সবচেয়ে বড় ব্লক বাস্টার প্রতিদ্বন্দ্বিতাগুলির মধ্যে একটি। ক্রিকেট-পাগল ভক্তরা এই প্রতিদ্বন্দ্বীতার স্বাদ তারিয়ে তারিয়ে উপভোগ করেন। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত দুই দেশের রাজনৈতিক সম্পর্কের কারণে তারা দীর্ঘ ১০ বছর কোনও দ্বিপাক্ষিক সিরিজে একে অপরের মুখোমুখি হতে পারে না।

Asia Cup 2022
Asia Cup 2022

দুই দলের শেষবার মুখোমুখি হয়েছিল সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে ২০২১ টি টোয়েন্টি ক্রিকেট বিশ্বকাপের সময়। কিন্তু ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীদের হৃদয় ভেঙে দিয়ে পাকিস্তান ২০২১ সালের সেই ঐতিহাসিক ম্যাচে প্রথমবারের মতো ভারতকে বিশ্বকাপে পরাস্ত করতে সমর্থ হয়েছিল। পাকিস্তানে খুশির বন্যা বয়ে গিয়েছিল কারণ বাবর আজমের দল ম্যাচটি ১০ উইকেটে জিতে নিয়েছিল।

চলতি মাসের ২৮ তারিখ ভারত এবং পাকিস্তান ফের একবার মুখোমুখি হবে একে অপরের এশিয়া কাপের শিরোপা জয়ের লক্ষ্যে মাঠে নামছেন রোহিত এবং বাবররা। ২৮শে আগস্ট ভারতীয় সময় সন্ধ্যা ৭.৩০ নাগাদ দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে গ্রুপ পর্বে মুখোমুখি হবে ভারত। আশা করা যায় দুই দলই নিজেদের গ্রূপ থেকে যোগ্যতাঅর্জন করবে সুপার ফোরের জন্য। সেক্ষেত্রে আরও একবার দুই দল সুপার ফোর পর্যায়ের রাউন্ড রিবন পদ্ধতির কারণে একে অপরের মুখোমুখি হবে ৪ঠা সেপ্টেম্বর। সুপার ফোরে যদি দুই দল শীর্ষ দুটি স্থান ছিনিয়ে নিতে পারে তাহলে ফাইনালে ফের দেখা হবে দুই প্রতিপক্ষের।

এরপর দুই দলই কিছু সময়ের বিরতির পর ২০২২ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য অস্ট্রেলিয়া উড়ে যাবে। এখানেও ভারত এবং পাকিস্তান একই গ্রুপে রয়েছে এবং তারা ২৩শে অক্টোবর মেলবোর্ন ক্রিকেট স্টেডিয়ামে একে অপরের মুখোমুখি হবে। অর্থাৎ তিন মাসের মধ্যে চারবার একে অপরের মুখোমুখি হবে এমন সম্ভাবনা তৈরি হচ্ছে। এরপর যদি দুই দল নিজেদের সেরা ছন্দে এগোতে থাকে তাহলে ফাইনাল অথবা সেমিফাইনালেও মুখোমুখি হতে পারে তারা। সেই আশঙ্কায় এখন থেকেই বুক বাঁধছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা।

Post a Comment

0 Comments