দাজ্জাল এর পৃথিবীতে আগমন এর একটি পুরিপূণ হাদিস

 আসলামুলাকুম বন্ধুরা,

আপনারা সবাই কেমন আছেন আশা করি সবাই ভালো আছেন। আমি আপনাদের দোয়াই ভালো আছি। তো আমাদের আজকের টপিক হলো দাজ্জাল এর পৃথিবীতে আগমন, এর একটি পুরিপূণ হাদিসের আলোকে আলোচনা করব। 

দারজ্জাল যে দিন এই পৃথিবীতে আগমন করবে সেইদিনটার দৈর্ঘ্য হবে চল্লিশ বছর, তারপরের দিনটার দৈর্ঘ্য হবে এক বছর সমান, তারপরের দিনটার দৈর্ঘ্য  হবে এক মাসের সমান, তারপরের দিনটার দৈর্ঘ্য হবে পনের দিনের সমান, তারপরের দিনটা হবে সাত দিনের সমান, তারপর থেকে বাকি দিনগুলো স্বাভাবিক হবে।

তারপর আমাদের হযরত ঈসা (আ) এবং ইমাম মাহদি আগমন হবে পৃথিবীতে এবং দাজ্জালকে হত্যা করবেন।ইমাম মাহদি নিজে আত্মপ্রকাশ করবেন না, কিন্তুু সকলে মিলেই তাকে চিনে ফেলবেন। ঈসা (আ) ও নিজে আত্মপ্রকাশ করবেন না, কিন্তু ইমাম মাহদি তাকে ঠিক চিনে ফেলবেন। ঈসা (আ) দুনিয়াতে ৪৫ বছর বাঁচবেন।দাজ্জালকে হত্যা করার পর সারা পৃথিবীতে আবার ইসলাম প্রচার করা হবে, কেউ আর অমুসলিম থাকবে না। এরপর পৃথিবীতে একটি ঠাণ্ডা হাওয়া আসবে, এতে এক চুলবিশিষ্ট ইমানদার যারা আছে, সেই সকল মুসলিমগন মৃত্যুবরণ করবেন। এরপর ধিরে ধিরে  ইমানদার ব্যক্তি পৃথিবীত থেকে হারিয়ে যাবে। আবার পৃথিবীতে অপসংস্কৃতির আবির্ভাব ঘটবে।

সবশেষে, মহানবী (স) বলেছেন যে, বিধর্মীদের ওপর কিয়ামত সংঘটিত হবে। কিন্তুু কোনো মুসলমানের ওপর কিয়ামত সংঘটিত হবে না। কিয়ামত সংঘটিত হওয়ার একটি নিদর্শন ও এখনো পৃথিবীতে সংঘটিত হয়নি। ১ দিন সমান ৪০ বছর, এই প্রথম আলামতই এখনো পৃথিবীতে প্রকাশিত হয়নি, সুতরাং কিয়ামত এখনো অনেক দূরে..

তাছাড়া, যারা এখন নিজেদেরকে ঈসা (আ) বা ইমাম মাহদি বলে দাবি করছে তারা সবাই ভণ্ড। কেননা ইসা (আ) বা ইমাম মাহদিকে সবাই হাদিস অনুসারে স্বাভাবিক ভাবে চিনবে। তাঁদের নিজেদের আত্মপ্রকাশ করার দরকার হবে না। তো সবাই হাদিস মানুন ও হাদিস অনুযায়ী চলার চেষ্টা করুন। 

তো আজকের টপিকটি সবার কেমন লাগলো কমেন্ট করে জানাবে।  আর ও এই রকম হাদিসের কথা জানতে আমাদের সাইটিকে Rugular ভিজিট করুন আর আমাদের টপিক গুলো Facebook, twitter, Instagram ইত্যাদি সোসিয়েল মিডিয়া গুলোতে শেয়ার করবেন। তো সবাই ভালো থাকবে ও সুস্থ থাকবে। আল্লাহ হাফেজ         

Post a Comment

0 Comments